Wednesday, 29 June 2016

খদ্দের মালকিনের মাল য্যামনে পারে নিক

জিনিশ একটাই। ওইটা কোথাও বিনামূল্যে, কোথাও নিম্ন মূল্যে আবার কোথাও উচ্চমূল্যে পাওয়া যায়, সহজকথায় লম্পটরা পায়। কিন্তু সমস্যাটা এখানেই, যারা বিনামূল্যে অথবা মূল্যে জোগাড় করতে পারে না, তারা জবরদস্তি করে জোগাড় করলেইবা মালকিনের ক্ষতি কী? বিনামূল্য, নিম্নমূল্য, উচ্চমূল্য, জবরদস্তি ইত্যাদি চার প্রকারের পার্থক্যটা কী আসলে? কেননা আামাদের সভ্যতা, আমাদের আইন শেষে বর্ণিত পদ্ধতিকে অবৈধ ঘোষণা করেছে। তার জন্য শাস্তির বিধান রেখেছে। কথা হলো, খদ্দের মালকিনের মাল য্যামনে পারে নিক। আসলে, রাক্ষুসী মালকিনের ইচ্ছার উপর সব নির্ভর করে, সে চাইলে মাগনা দিবে, সে চাইলে ফিতে দিবে, সে চাইলে জেলে যাবে খদ্দের...
বি.দ্র. ইসলামে এই চারপ্রকারই সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।