Saturday, 11 June 2016

“প্রথম বাংলাদেশ, আমার শেষ বাংলাদেশ” গান বাজানো জন্য সরকারি কর্মচারি বরখাস্ত

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে চলতি অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতা প্রচারের আগমূহুর্তে প্রচারকুশলীরা
ভুলবশত “প্রথম বাংলাদেশ, আমার শেষ বাংলাদেশ” গানটি অন-এয়ারে নিয়ে আসেন। যার প্রতিক্রিয়া স্বরুপ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ঢাকা বেতারের আঞ্চলিক পরিচালক সায়েদ মোস্তফা কামাল সহ ৪ জনকে বরখাস্ত করেন। যদিও ওই দিন সায়েদ মোস্তফা কামাল ছুটিতে ছিলেন। কর্তব্যে অবহেলার দায়ে বরখাস্ত করা হয়ে থাকলে তথ্যমন্ত্রী, তথ্যসচিব, বেতার মহাপরিচালকও বরখাস্তের আওতায় পরার কথা।যাক, জাতীয় সংগীত পর্যায়ের মর্যাদাসম্পন্ন দেশাত্মবোধক একটি গান হলো এই-“প্রথম বাংলাদেশ, আমার শেষ বাংলাদেশ।” এই গান সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের প্রিয় ছিল বলে বাংলাদেশ বেতারে বাজানো যাবে না কিংবা বাজানো অপরাধ বলে বিবেচিত হবে এমন কোনও আইন বর্তমান সরকার আজও জারি করেনি। সতরাং এই গাণ প্রচারের দায়ে কর্মকতাদের বরখাস্ত করার সিদ্ধান্তটা কতটুকু কার্য্কর হতে পারে? কার্য্কর হলেও কতটুকু বৈধ হবে বলে মনে করেন আইনজ্ঞরা এবং দেশের আপামর জন্গণ।
 
ওয়াজেদ দেবদূত

wazeddevdoot@lawyer.com
01711167940
12062016